কিভাবে কাজ করে গুগল ম্যাপ?

    How does Google map work?
    আজ থেকে কিছু বছর আগে কোন জায়গার খোঁজ করতে হলে আমাদের ব্যবহার করতে হত কাগজের বড় ম্যাপ।প্রায় বেশিরভাগ বাড়িতেই টাঙানো থাকতো এই ম্যাপ।কিন্তু গুগলের প্রচেষ্টায় তা এখন চলে এসেছে একেবারে আমাদের হাতের মুঠোয়।অর্থাৎ আমরা যে কোন স্মার্ট মোবাইল থেকেই গুগল ম্যাপের দ্বারাই অতি সহজেই জেনে নিতে পারি কোন কিছুর অবস্থান।
    কিন্তু কিভাবে গুগল এত ডাটা সঞ্চয় করেছে,বা প্রতিনিয়তঃ কিভাবে গুগল ম্যাপ আপডেট করে চলেছে?২০০০ সালে গুগলের মাথায় গুগল ম্যাপের বিষয়টি আসে,আর সেই সময়কার একটি জনপ্রিয় পথনির্দেশক সাইট “Where you” কে কিনে নেন গুগোল।এতে কিছু পরিমাণ ডাটা থাকলেও বর্তমানের মতো এতো ডাটা ছিল না।তখন গুগোল সমগ্র পৃথিবীর ম্যাপ গুগল ম্যাপে দেওয়ার দরুণ বিভিন্ন পথ অবলম্বন করে।
    গুগল ম্যাপে ডাটা কালেকশন এর দরুন গুগল সর্বপ্রথম যেটা করে তা হলো স্যাটেলাইট থেকে বিভিন্ন এলাকার 2D ছবির নির্ধারণ।এবং এই সমগ্র ডাটা গুগল ম্যাপ এ আপলোড করে।কিন্তু এতে যে সমস্যাটি হয় তা হলো এতে স্ট্রিট ভিউর যথাযথ ম্যাপ পাওয়া যায়নি।এর জন্য গুগুল যেখানে যেখানে সম্ভব গুগলের স্মার্ট এ ওয়ান নামক একটি গাড়ি চালায়।যার মাথায় লাগানো ক্যামেরা ও জিপিএস সিস্টেম থেকে স্ট্রিটভিউ ও তাঁর চারপাশের বিভিন্ন ব্যানার থেকে সেখানকার অবস্থান দোকানপাট বাসস্থান ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ডেটা সংগ্রহ করতে থাকে।এবং যেখানে যেখানে গাড়ি চালানো সম্ভব নয় সেখানে হেলিকপ্টার প্লেন থেকে থ্রিডি ক্যামেরার মাধ্যমে ছবি তুলে ডাটা কালেক্ট করতে থাকে।

How does Google map work?

    এছাড়াও গুগল তার ইয়োলো পেজ থেকে ডাটা সংগ্রহ করে থাকে। এখান থেকে বিভিন্ন জায়গা অফিস বা ব্যক্তির ডেটা সংগ্রহ করে থাকে।এবং সেই প্রতিষ্ঠানের কতক্ষণ খোলা কবে কবে খোলা সব ডাটা পেয়ে থাকে।
    বর্তমানে আমরাই ক্লাউড এর মাধ্যমে গুগোল কে ডাটা দিতে থাকি। গুগলকে আর ডেটা সংগ্রহ করতে হয় না।আমরাই নিজের থেকে আমাদের লোকেশান আপলোড করে থাকি।এবং আমাদের কোন ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান থাকলে তার সমস্ত ডিটেল গুগলকে আপলোড করে থাকি।এবং গুগুল তা একটি শর্ট প্রসেস এর মাধ্যমে ভেরিফাই করে নেওয়ার পর গুগল ম্যাপে তা সবার জন্য দৃশ্যমান করে।
    এ ছাড়া নতুন কোনো রাস্তা হলে সেখানে কমাগত মানুষ ও যানবাহনে যাতায়াতের ছবি স্যাটেলাইট থেকে গুগোল সংগ্রহ করে তা নিজের থেকেই আপলোড করে থাকে।এছাড়া আমাদের মোবাইলে জিপিএস অন থাকলে আমরা কোন রাস্তা বা কোন জায়গায় কতক্ষণ আছি তা এনালাইজ করে ট্রাফিক সম্পর্কের সূচনা দেয়।
    সুতরাং বর্তমানে জনজীবন ও গুগল ম্যাপ একে অপরের পরিপূরক হয়ে দাঁড়িয়েছে।এবং এই ব্যস্ততা জীবনে গুগল ম্যাপ মানুষের কাছে এক বিশেষ জায়গা করে নিয়েছে।

[যদি প্রতিবেদনটি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে শেয়ার কমেন্ট ও লাইক করতে ভুলবেন না।]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *