কাটমানি নেওয়ার অভিযোগে অপসারিত উপ-পুরপ্রধান শান্তা সরকার

সোনারপুর: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘোষণার পর থেকে কড়া প্রশাসন ৷ কাটমানি নেওয়ার অপরাধে এবার অপসারিত রাজপুর-সোনারপুর উপ-পুরপ্রধান ৷ শনিবার অপসারণ করা হয় উপ-পুরপ্রধান শান্তা সরকারকে ৷

শুধু কাটমানি নয়, উপ-পুরপ্রধানের বিরুদ্ধে দুর্নীতিরও অভিযোগ ৷ একইসঙ্গে পুরপ্রধানের সঙ্গে দুর্ব্যবহারের অভিযোগ রয়েছে শান্তা সরকারের বিরুদ্ধে ৷ নবান্ন ও পুরমন্ত্রীর কাছে অভিযোগ জমা পড়ে ৷ এর আগে শান্তা সরকারের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ উঠেছে ৷ এর জেরে অপসারণের সিদ্ধান্ত ৷

সরকারি প্রকল্পের সুবিধা দেওয়া বা অন্য কোনও আছিলায় কাটমানি খাওয়া বন্ধ করতে হবে। বিভিন্ন পুরসভার দলীয় কাউন্সিলরদের সঙ্গে বৈঠকের আগে, গত ১০ জুন নবান্নে প্রশাসনিক বৈঠকেও এই কড়া বার্তা দেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রীর দফতরে চালু হয়েছে অভিযোগ সেলও। সেখানে এই ক’দিনেই জমা পড়েছে ভূরি ভূরি অভিযোগ। কাটমানি খাওয়ার অভিযোগে গ্রেফতারও করা হয়েছে মালদার এক তৃণমূল নেতাকে। ১ কোটি টাকা কাটমানি খাওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে মালদার ওই তৃণমূল নেতাকে।

কাটমানি খাওয়া রুখতে মুখ্যমন্ত্রীর দাওয়াইয়ের জের। দলের রং না দেখে কড়া প্রশাসন। নির্মল বাংলা প্রকল্পে ১ কোটি টাকা কাটমানি খাওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার মালদার তৃণমূল নেতা। মুখ্যমন্ত্রীর দফতরে যে অভিযোগ সেল চালু হয়েছে, সেখানে জমা পড়েছে ভূরি ভূরি অভিযোগ। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই কাঠগড়ায় তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা।

[যদি প্রতিবেদনটি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে শেয়ার কমেন্ট ও লাইক করতে ভুলবেন না।]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *