কেন আত্মহত্যা করলেন সুশান্ত! অবশেষে মুখ খুললেন সুশান্তের মনোবিদ

এদিন তিনি বলেন, “বারংবার রিয়া এবং সুশান্তকে নিয়ে নানা তত্ত্ব সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরতে দেখে আমি আর চুপ করে থাকতে পারলাম না।”

চারদিকে নানা তত্ত্ব ও পাল্টা তত্ত্বের ভীড়। দেখে নিজেকে আর ধরে রাখতে পারলেন না তিনি। অবশেষে মুখ খুললেন সুশান্ত সিং রাজপু‌তের মনোবিদ ড. সুসান ওয়াকার। একটি জাতীয় টেলিভিশন চ্যনেলে সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়ে দিলেন সুশান্ত সিং রাজপুত বাইপোলার ডিসঅর্ডারে ভুগছিলেন।

এদিন তিনি বলেন, “বারংবার রিয়া এবং সুশান্তকে নিয়ে নানা তত্ত্ব সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরতে দেখে আমি আর চুপ করে থাকতে পারলাম না। আমি মনে করি আমার দায়িত্ব এই নিয়ে কথা বলা।”

কী বলছেন তিনি? সুসানের দাবি, আমি বারংবার সুশান্ত এবং রিয়ার সঙ্গে দেখা করেছি। নভেম্বর ২০১৯ থেকে জুন ২০২০ বহুবার ওঁদের সঙ্গে কথা হয়েছে। সুশান্ত বাইপোলার ডিসঅর্ডারের শিকার ছিলেন।

তিনিই উপসর্গগুলিও ধরিয়ে দেন। বলেন, এই রোগে বছরের এখটি নির্দিষ্ট সময়ে রোগী খারাপ থাকতে শুরু করে। নিজের মধ্যেই কুঁকড়ে যায় সে। তাঁকে জাঁকিয়ে ধরে ডিপ্রেশান, অ্যাংজাইটি ও অজানা ভয়।

গত কয়েকদিনে সুশান্ত-রিয়ার রসায়ন নিয়ে উত্তাল হয়েছে দেশ। অনেকেই রিয়াকেই সুশান্তের মৃত্যুর জন্য একহাত নিয়েছেন। কিন্তু সম্পূর্ণ অন্য কথা বলছেন তিনি। তিনি জানাচ্ছেন, খারাপ থাকার দিনগুলিতে সুশান্তের পাশেই ছিলেন রিয়া।

তাঁর কথায়, রিয়া সুশান্তকে আগলে রেখেছিল। অনেকটা মায়ের মতো কাছে কাছে থাকত। একজন নিকট আত্মীয় এভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েছে দেখে সেটা গোপন রেখে পাশে থাকাটাও কম কঠিন নয়।

এই মনোবিদ মনে করেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় রিয়া চক্রবর্তীকে যেভাবে লাগাতার আক্রমণ করা হচ্ছে তা একেবারেই অনুচিত। কাণ তিনি বারংবারই দেখেছেন সুশান্তের সাহারা হয়ে উঠেছেন রিয়া।

গত ১৪ জুন বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত নিজের ফ্ল্যাটে আত্মহত্যা করেন। সম্প্রতি সুশান্তের পরিবার আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগ দায়ের করেছেন সুশান্তের বান্ধবী রিয়ার বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন:কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ, সুশান্তের দেহরক্ষী বদল: রিয়ার বিরুদ্ধে আর যা যা মারাত্মক অভিযোগ এফআইআর-এ

[যদি প্রতিবেদনটি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে শেয়ার কমেন্ট ও লাইক করতে ভুলবেন না।]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *