প্যান্টের ভিতর ঢুকে পড়ল বিষধর গোখরো, প্রাণে বাঁচতে যুবককে দিতে হল কঠিন পরীক্ষা

যে-সে সাপ নয়। সাক্ষাত্ গোখরো। মানে মৃত্যুদূত যাকে বলে! রাতে খাবার পর শুয়েছিলেন তিনি। তখনই আচমকা একটি গোখরো সাপ তাঁর প্যান্টের ভিতর ঢুকে পড়ে। তার পরই শুধু হয় জীবন-মৃত্যুর টানাটানি। সেই যুবকের তো ভয়ে প্রায় অজ্ঞান হওয়ার মতো অবস্থা। প্যান্টের ভিতর থেকে গোখরো নিজে তেকে বেরোচ্ছে না। এদিকে তিনি সেটিকে বের করার জন্য কিছু করতেও পারছেন না। ভাবুন এমন পরিস্থিতিতে মনের অবস্থা কী হতে পারে! ওই যুবকের সৌভাগ্য যে সাপটি তাঁকে কামড়ায়নি। তবে মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচার জন্য সেই যুবককে দিতে হয়েছে কঠিন পরীক্ষা।

উত্তরপ্রদেশের মির্জাপুরের সিকন্দরপুর গ্রামের ঘটনা। লাভকেশ কুমার নামের এক যুবকের প্যান্টের ভিতর ঢুকে পড়েছিল আস্ত গোখরো। তার পর সাত ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থাকেন তিনি। ওই গ্রামে বিদ্যুতের পোলে কাজ করতে গিয়েছিলেন লাভকেশ ও তাঁর সঙ্গীরা। রাতে খেয়েদেয়ে শোবার পর লাভকেশের প্যান্টে ঢুকে পড়ে গোখরোটি। রাতেই বুঝতে পারেন লাভকেশ। তার পরই ভয়ে, আতঙ্কে লাভকেশ ও তাঁর সঙ্গীরা কী করবেন বুঝে উঠতে পারছিলেন না। ঘণ্টার পর ঘণ্টা তাঁর প্যান্টের ভিতরই থাকে সাপটি। এরই মধ্যে গ্রামবাসীরাও খবর পেয়ে চলে আসেন। কিন্তু এত সব কিছুর মাঝে সাপটি তাঁকে কামড়ায়নি।

সাত ঘণ্টা একটি পিলার ধরে দাঁড়িয়ে ছিলেন লাভকেশ। তার পর ভোরবেলা এক সাপুড়েকে খবর দিয়ে আনা হয়। তিনি এসে খুব সাবধানে ও কায়দা করে সাপটিকে প্যান্ট থেকে বের করেন। হাঁফ ছেড়ে বাঁচেন লাভকেশ। ভয়ে পাথর হয়ে গিয়েছিলেন লাভকেশ। কিন্তু সাপুড়ে প্যান্ট কেটে খুব সাবধানে সাপটিকে বের করে আনে। এই ঘটনার একটি ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ওই সময় যুবকের মানসিক অবস্থায় কথা ভেবে অনেকেই আঁতকে উঠছেন।

আরও পড়ুন : রোগ প্রতিরোধে পাতে থাকুক টক দই

[যদি প্রতিবেদনটি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে শেয়ার কমেন্ট ও লাইক করতে ভুলবেন না

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *