বিপুল সংখ্যার মানুষের করোনামুক্তির রহস্য ফাঁস করলো চিন, পড়ুন বিস্তারিত

সারা বিশ্ব জুড়ে এখন চোখ রাঙাচ্ছে করোনা। সারা বিশ্ব জুড়ে তাবড় তাবড় গবেষক থেকে শুরু করে চিকিৎসকরা লেগে আছে করোনার টিকা আবিষ্কারের পেছনে। তবে এরমধ্যেই নতুন আশার আলো দেখালো চীন। সম্প্রতি চীনের কমিউনিস্ট পার্টির প্রচার বিভাগের প্রধান জু লিন জানিয়ে দেন চীনের অতিপ্রাচীন ভেষজ চিকিৎসার দ্বারাই করোনামুক্ত হয়েছে বিপুল সংখ্যার মানুষ। ১৪০ কোটির জনবসতি যুক্ত চিনে এখনো করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এক লক্ষের বেশি ছাড়ায়নি।

মে মাস পর্যন্ত চিনে ৮৩,০১৭জন কোভিড আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ৭৮, ৩০৭জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। মৃত্যু হয়েছে ৪৬৩৪ জনের। অর্থাৎ ৯৪.৩ শতাংশ রোগী সুস্থ হয়েছেন। চীনের ট্র্যাডিশনাল চিকিৎসার দ্বারাই এই অসম্ভব সম্ভব হয়েছে বলে জানিয়েছেন জু লিন। তবে চীন এই অসাধ্য সাধন করতে পারলেও ভারত তা কি করতে পারবে?

শ্যামবাজারের জে বি রায় আয়ুর্বেদ কলেজ হাসপাতালের প্রাক্তন অধ্যক্ষ ডা. সঞ্জীব সামন্ত জানিয়েছেন, ‘চিনে মডার্ন মেডিসিন ও ট্র্যাডিশনাল মেডিসিন হাত ধরাধরি করে চলে। তাই এই সাফল্য এল।কিন্তু এদেশে এখনও সেই সুযোগ নেই। সঞ্জীববাবুর পর্যবেক্ষণ, দেশ স্বাধীন হওয়ার সময় যে স্বাস্থ্যনীতি তৈরি হয় সেখানে আয়ুর্বেদের কোনও উল্লেখ ছিল না। তাই সাড়ে তিন হাজার বছরের পুরনো একটি বিজ্ঞান এখনও এদেশে অবহেলিত। শহরের নেফ্রোলজিস্ট ডা. প্রতিম সেনগুপ্ত অবশ্য চিনা শ্বেতপত্র নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন। তাঁর মত, প্রথাগত চিনা ওষুধে যদি কাজ হয়, তাহলে তো ভালই। রোগের নিরাময় হওয়া নিয়ে কথা। কিন্তু, সমস্যা হল, চিন বারবার ভুল তথ্য দিয়ে বিশ্বকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করেছে। তাই একটি নিরপেক্ষ পর্যবেক্ষণ দরকার। অনেক ধোঁয়াশা আছে। আজ অবধি কিন্তু জানা যায়নি, চিনের ২ লক্ষ মোবাইল গ্রাহক কোথায় উধাও হয়ে গেলেন? সন্দেহের সুর ‘ওয়েস্ট বেঙ্গল ডক্টরস ফোরাম’—এর সভাপতি ডা. অর্জুন দাশগুপ্তর গলায়ও। তিনি বলেন, “COVID চিকিৎসায় অ্যাজিথ্রোমাইসিন, হাইড্রোক্সিক্লোরোকুনের মতো একাধিক ওষুধের নাম ভেসে উঠেছে। কিন্তু এর পিছনে এত বেশি রাজনীতি রয়েছে যে জনমানসে বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে। সেই সুযোগেই আয়ুর্বেদ বা চিনা ওষুধের এই রমরমা। কিন্তু ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল কোথায়?”

আরও পড়ুন : করোনা রুখতে ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে প্রতি দিন খান এই ভেষজ জল

[যদি প্রতিবেদনটি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে শেয়ার কমেন্ট ও লাইক করতে ভুলবেন না।]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *