ভ্যাকসিনে আরও সন্দেহ বাড়ালেন রুশ স্বাস্থ্যকর্তা

রাশিয়া বলছে ভ্যাকসিন তৈরি। অথচ তাদের মন্ত্রকেরই এক স্বাস্থ্য বিশারদ আজ সুপারিশ করলেন, ১৮ থেকে ৬০ বছর বয়সিদের মধ্যে ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা যাবে। শিশু কিংবা বৃদ্ধদের এই প্রতিষেধক প্রয়োগের জন্য আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষা প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন তিনি।

গত মঙ্গলবার রাশিয়া ঘোষণা করে, ‘স্পুটনিক ভি’ হাজির। তাদের ভ্যাকসিন তৈরি। প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এ-ও জানিয়ে দেন, তাঁর নিজের মেয়ের শরীরে ওই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়েছে। যদিও পরমুহূর্তেই রুশ বিদেশমন্ত্রী কিরিল দিমিত্রিয়েভের মন্তব্যে জানা যায়, ওই ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের তৃতীয় ধাপ শুরু হয়নি। অর্থাৎ নিয়ম মেনে ট্রায়াল সম্পূর্ণ না-করেই তারা ভ্যাকসিন প্রয়োগের ছাড়পত্র দিয়ে ফেলেছে।

আজ রুশ স্বাস্থ্য মন্ত্রকের ‘সায়েন্টিফিক সেন্টার ফর এক্সপার্ট ইভালুয়েশন অব মেডিক্যাল প্রোডাক্টস’-এর প্রধান ভ্লাদিমির বন্দারেভ বলেন, ‘‘রাশিয়ায় বয়স অনুযায়ী তিনটি ভাগে পরীক্ষা করা হয়। সদ্যোজাত থেকে ১৮ বছর, ১৮ থেকে ৬০ এবং ৬০-এরও বেশি বয়সি। এখনও পর্যন্ত ১৮ থেকে ৬০ বছর বয়সিদের মধ্যে শুধু পরীক্ষা হয়েছে। অতএব এদের উপরেই ভ্যাকসিনটি প্রয়োগ করা সম্ভব বা উচিত।’’ যদিও গামালিয়া ইনস্টিটিউটের ডিরেক্টর এ-সব কিছুই জানাননি। উল্টে ৬০ ছুঁইছুঁই প্রবীণ বিজ্ঞানী বলেছিলেন, তিনি নিজের ভ্যাকসিন নিয়েছেন এবং ভাল আছেন।

আরও পড়ুন :ভারতে কী ভাবে ভ্যাকসিন প্রয়োগ, যাবতীয় বিষয় নিয়ে প্রথম বৈঠক সেরে ফেলল কেন্দ্রের বিশেষ কমিটি

[যদি প্রতিবেদনটি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে শেয়ার কমেন্ট ও লাইক করতে ভুলবেন না]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *