মুখ্যমন্ত্রীর আবেদনকে থোড়াই কেয়ার! কলকাতায় নেই বাস, হয়রান নিত্যযাত্রীরা

বাস মালিক সংগঠনের বক্তব্য, “গোটা রাজ্যে মোট ২৭০০০ বাস চলে। তার মধ্যে ক্ষতির বোঝা বয়ে ২৫% পথে নেমেছে। এর বাইরে ভাড়া না বাড়ালে আর বাস নামানো সম্ভব নয়।”

কলকাতা: 

 মুখ্যমন্ত্রীর আবেদন থাকলেও, সোমবার পথে নামল না অধিকাংশ বেসরকারি বাস (Private Bus Kolkata)। ভাড়া বৃদ্ধি নিয়ে চলা জটে সপ্তাহের প্রথম কাজের দিনে দুর্ভোগ নিত্যযাত্রীদের। গত সপ্তাহে মুখ্যমন্ত্রী বাস মালিক সংগঠনগুলোকে আবেদন করেছিলেন, আরও অন্তত পাঁচ হাজার বাস পথে নামান। এখন ভাড়া বাড়ানো সম্ভব নয়। তবে সরকারি তরফে বাসপিছু ১৫ হাজার টাকা ভর্তুকি দেওয়া হবে (Government package to Private bus)। রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধানের এই আবেদনও বাস নামাতে নারাজ জয়েন্ট কাউন্সিল অফ বাস সিন্ডিকেট। তাদের দাবি, “যে হারে জ্বালানির দাম বেড়েছে, তার সঙ্গে পাল্লা দিতে ভাড়া বাড়ানো একমাত্র বিকল্প। মুখ্যমন্ত্রী ১৫ হাজার টাকা সরকারি প্যাকেজের কথা ঘোষণা করেছেন। তাঁর এই উদ্যোগকে ধন্যবাদ।”

সোমবার সপ্তাহের প্রথম কাজের দিনে পথে নেমে হয়রান নিত্যযাত্রীরা। তাঁদের অভিযোগ, “গত দু’সপ্তাহের চেয়েও এদিন পথে কম ছিল বেসরকারি বাস। ফলে কর্মক্ষেত্রে পৌঁছাতে বেশ দেরী হয়ে যাচ্ছে। ডিপোতে সরকারি বাস থাকলেও তাদের পরিষেবা তথৈবচ।” বিভিন্ন বাসস্ট্যান্ডেও যাত্রীদের বাসের অপেক্ষায় দীর্ঘ লাইন চোখে পড়েছে।

এই বিতর্কে বাস সিন্ডিকেটের সাধারণ সচিব তপন বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, “ডিজেলের চড়া দাম সঙ্গে সরকারি স্বাস্থ্যবিধি। যত সিট, তত যাত্রী, এই নিদান পালনে ক্ষতি হচ্ছে বাস মালিকদের। যে টিকিট বিক্রি হচ্ছে, তা থেকে জ্বালানির খরচও উঠছে না।” গত তিন সপ্তাহে প্রায় ২২ বার বেড়েছে ডিজেলের দাম। কিন্তু বাসভাড়া অপরিবর্তিত এমন অভিযোগও করেছেন তপন বন্দ্যোপাধ্যায়।

বাস মালিক সংগঠনের বক্তব্য, “গোটা রাজ্যে মোট ২৭০০০ বাস চলে। তার মধ্যে ক্ষতির বোঝা বয়ে ২৫% পথে নেমেছে। এর বাইরে ভাড়া না বাড়ালে আর বাস নামানো সম্ভব নয়।”

আরও পড়ুন:অনন্তনাগে খতম আরও ৩ জঙ্গি, কাশ্মীরে ধারাবাহিক সাফল্য নিরাপত্তা বাহিনীর

[যদি প্রতিবেদনটি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে শেয়ার কমেন্ট ও লাইক করতে ভুলবেন না।]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *